পাকিস্তান

পাকিস্তান দেশটি প্রসঙ্গে অবস্থান, আয়তন ও জনসংখ্যা, সীমা, নামকরণ, ঐতিহাসিক দিক, রাজনৈতিক দিক, প্রশাসনিক অঞ্চল, অর্থনৈতিক দিক, ধর্ম, ভাষা ও জাতীয় পতাকা সম্পর্কে জানবো।

পাকিস্তান

দেশ পাকিস্তান
রাজধানী ইসলামাবাদ
জাতীয় ভাষা উর্দু
বৃহত্তম নগরী করাচী
স্বাধীনতা দিবস ১৫ আগস্ট
রাষ্ট্রপতি আরিফ আলভী
প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফ
পাকিস্তান

ভূমিকা :- দক্ষিণ এশিয়ার একটি রাষ্ট্র পাকিস্তান, সরকারিভাবে ইসলামি প্রজাতন্ত্রী পাকিস্তান। ১৯৪৭ সালে স্বাধীনতা লাভের পর অখণ্ড ভারতবর্ষের মুসলিম প্রধান অঞ্চল গুলি নিয়ে পাকিস্তান রাষ্ট্র গঠিত হয়।

পাকিস্তান দেশের অবস্থান

পাকিস্তান দক্ষিণ এশিয়া, দক্ষিণ-পশ্চিম এশিয়া ও মধ্য এশিয়ার সংযোগস্থলে অবস্থিত একটি দেশ এবং ভারত উপমহাদেশের অংশ। এর ভৌগোলিক অবস্থান ৩৩°৪০′ উত্তর ৭৩°১০′পূর্ব।

আয়তন ও জনসংখ্যা

২১ কোটির অধিক জনসংখ্যা নিয়ে দেশটি জনসংখ্যার দিক থেকে বিশ্বের পঞ্চম বৃহত্তম রাষ্ট্র এবং আয়তনের দিক থেকে ৩৩ তম বৃহত্তম রাষ্ট্র। এর আয়তন প্রায় আট লক্ষ বর্গকিমি।

পাকিস্তান দেশের সীমা

পাকিস্তানের দক্ষিণে আরব সাগর এবং ওমান উপসাগরীয় উপকূল, পূর্ব দিকে ভারত, দক্ষিণ-পশ্চিমে ইরান এবং উত্তর-পূর্ব দিকে চীন সীমান্ত। দেশটি আফগানিস্তান থেকে পশ্চিমে।

সমুদ্র সীমান্ত

দেশটি উত্তর-পশ্চিমে আফগানিস্তানের ওয়াখান করিডোরের দ্বারা তাজিকিস্তান থেকে সংকীর্ণভাবে বিভক্ত এবং ওমানের সাথে সমুদ্রের সীমান্ত ভাগ করেছে।

পাকিস্তান দেশের নামকরণ

  • (১) ফার্সি ও উর্দু ভাষায় ‘পাকিস্তান’ শব্দের অর্থ পবিত্র স্থান বা এলাকা। ফার্সি ও পশতু শব্দ ‘পাক’ অর্থ পবিত্র। ‘স্তান’ একটি তৎসম-ফার্সি শব্দ যার অর্থ স্থান বা এলাকা।
  • (২) চৌধুরী রহমত আলী “Now or Never” পুস্তকে পাকিস্তান নামটির প্রস্তাব দেন। আরবি ভাষায় এর অর্থ ‘মদিনা-এ-তৈয়্যেবা’ বা পবিত্র স্থান, মদিনা শব্দের অর্থ এলাকা এবং তৈয়্যেবা অর্থ পবিত্র।
  • (৩) অন্য একটি মত অনুসারে, ইংরেজি ভাষায় PAKISTAN নামকরণ করা হয়েছে বিভিন্ন স্থানের নামের প্রথম অক্ষর দিয়ে। –

P – পাঞ্জাব

A – আফগানিয়া (খাইবার পাখতুনখোয়া ও তৎসংলগ্ন অঞ্চল)

K – কাশ্মীর

I – ইন্দাস অর্থাৎ সিন্ধু উপত্যকার ভাটি অঞ্চল

STAN – বেলুচিস্তান এর শেষ চার বর্ণ

অর্থাৎ, এই নির্দিষ্ট অঞ্চল গুলি জুড়ে হিন্দুস্তান থেকে পৃথক হয়ে গঠিত হওয়ায় রাষ্ট্রটির নাম হয় ‘পাকিস্তান’।

পাকিস্তান দেশের ঐতিহাসিক দিক

  • (১) প্রাচীন সিন্ধু অঞ্চল যা বর্তমান পাকিস্তানের দক্ষিণ-পশ্চিম অংশ ছাড়া অবশিষ্ট অংশ নিয়ে গঠিত, প্রাচীন কালে নব্য প্রস্তর যুগের মেহেরগড় সভ্যতার মতো অনেক উন্নত সভ্যতার উৎপত্তিস্থল ছিল। ব্রোঞ্জ যুগে সিন্ধু সভ্যতায় হরপ্পা ও মহেঞ্জো-দাড়ো নামে দুটি উন্নত নগর ছিল।
  • (২) বৈদিক যুগে ইন্দো আর্যদের মাধ্যমে এখানে হিন্দুদের গোড়াপত্তন হয়, যা পরবর্তীতে পুরো এলাকায় ছড়িয়ে পড়ে। এখানকার মুলতান শহর হিন্দুদের গুরুত্বপূর্ণ তীর্থযাত্রা কেন্দ্রে পরিণত হয়।
  • (৩) ভারতের ঔপনিবেশিক আমলকে দুই ভাগে ভাগ করা হয় – ইংলিশ ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির শাসনামল ও ব্রিটিশ সরকারের শাসনামল। তবে পাকিস্তান প্রথম থেকেই ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির শাসনাধীনে যায়নি। কারণ তখনও এই অঞ্চলে স্বাধীনভাবে রাজারা শাসন করতো। তারপর ক্রমে পাকিস্তান অঞ্চল ব্রিটিশ অধিভুক্ত হয়।

দুই দেশের জন্য

১৯৪৭ সালে ব্রিটিশ রাজশক্তি ভারতীয় উপমহাদেশ ছেড়ে যেতে বাধ্য হলে এই উপমহাদেশ বিভাজনের মাধ্যমে ভারত ও পাকিস্তান দুটি দেশের জ‌ন্ম হয়। পাকিস্তান রাষ্ট্রটি মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ বেলুচিস্তান, খাইবার পাখতুনখোয়া, সিন্ধু, পশ্চিম পাঞ্জাব ও পূর্ব বাংলা, এই রাজ্যগুলো নিয়ে গঠিত হয়।

অধুনা ভারত

পরবর্তীতে প্রতিবেশী রাজতান্ত্রিক কাশ্মীর রাজ্যের পশ্চিমাংশ পাকিস্তান রাষ্ট্রের অধিকারে আসে। অপরদিকে মূলত হিন্দু ও শিখ সংখ্যাগরিষ্ঠ রাজ্যগুলো নিয়ে অধুনা ভারত রাষ্ট্রটি গঠিত হয়।

স্বাধীন বাংলাদেশ

১৯৭১ সালের ২৬শে মার্চ থেকে যুদ্ধ শুরু হয়ে টানা নয় মাস ভ্রাতৃঘাতী রক্তক্ষয়ী গৃহযুদ্ধের তথা মুক্তিযুদ্ধের পর ১৬ই ডিসেম্বর পূর্ব পাকিস্তান রাজ্যটি ‘বাংলাদেশ’ নাম পরিগ্রহ করে একটি পৃথক স্বাধীন ও সার্বভৌম রাষ্ট্র হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে।

রাজনৈতিক দিক

  • (১) পাকিস্তানের রাজনীতি বর্তমানে একটি অর্ধ-রাষ্ট্রপতিশাসিত যুক্তরাষ্ট্রীয় প্রজাতন্ত্র কাঠামোয় সম্পাদিত হয়। রাষ্ট্রপতি হলেন রাষ্ট্রের প্রধান। সরকারের প্রধান হলেন প্রধানমন্ত্রী। আইন প্রণয়নের ক্ষমতা প্রধানত আইনসভার উপর ন্যস্ত আছে।
  • (২) পাকিস্তানের প্রথম প্রধানমন্ত্রী ছিলেন ভারতের অন্তর্বর্তীকালীন সরকারের অর্থমন্ত্রী লিয়াকত আলি খান। দীর্ঘ মেয়াদি প্রধানমন্ত্রীরা হলেন বেনজীর ভুট্টো, নওয়াজ শরীফ ও ইউসুফ রেজা গিলানি।

প্রশাসনিক অঞ্চল

পাকিস্তান দেশটি কয়েকটি প্রশাসনিক অঞ্চলে বিভক্ত। যথা – পাঞ্জাব, সিন্ধ, খাইবার পাখতুনখোয়া, বালুচিস্তান, পাকিস্তান-শাসিত কাশ্মীর, গিলগিত-বালতিস্তান, ইসলামাবাদ।

ভৌগোলিক দিক

পাকিস্তান তিনটি প্রধান ভৌগোলিক অঞ্চলে বিভক্ত – উত্তরের উচ্চভূমি, সিন্ধু নদের অববাহিকা (পাঞ্জাব ও সিন্ধু প্রদেশ উপবিভাগ) এবং বেলুচিস্তান মালভূমি।

অরণ্য

পাকিস্তান দেশটির মোট আয়তনের মাত্র ১৯ শতাংশ বনাঞ্চল। জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থার তথ্যমতে ১৯৯০ থেকে ২০১০ সাল পর্যন্ত পাকিস্তানে ৮ লক্ষ ৪০ হাজার হেক্টর বনভূমি নষ্ট হয়েছে।

পাকিস্তান দেশের অর্থনৈতিক দিক

পাকিস্তান একটি উন্নয়নশীল দেশ। সামাজিক অস্থিতিশীলতার পরে সাম্প্রতিক কালে রেল পরিবহন এবং বৈদ্যুতিক শক্তি উৎপাদনের ক্ষেত্রে অর্থনীতিতে গুরুতর ঘাটতিগুলি বিকাশ লাভ করেছে। দেশটির স্থূল অভ্যন্তরীণ উৎপাদন মান ভারতের এক দশমাংশ।

ধর্ম

পাকিস্তানের রাষ্ট্রধর্ম হল ইসলাম। দেশের ৯৬ শতাংশ মানুষই মুসলিম। পাকিস্তান রাষ্ট্রের সংবিধানে ধর্ম পালনের স্বাধীনতার ব্যাপারে বলা হয়েছে যে, পাকিস্তানের সব মানুষ তাদের স্ব-স্ব ধর্ম পালন করার অধিকার রাখে। দেশটির সংখ্যালঘু ধর্মাবলম্বীদের মধ্যে হিন্দু, খ্রিষ্টান এবং শিখরা রয়েছে।

পাকিস্তান দেশের ভাষা

পাকিস্তানের জাতীয় ভাষা উর্দু এবং সরকারি ভাষা ইংরেজি। এছাড়াও পাঞ্জাবি, সিন্ধি, সারাইকি, পশতু, বেলুচি, ব্রাহুই ইত্যাদি ভাষা দেশে প্রচলিত আছে। অনেক ভাষাই ইন্দো-ইউরোপীয় ভাষাপরিবারের বিভিন্ন শাখার অন্তর্গত।

জাতীয় পতাকা

সৈয়দ আমিরুদ্দিন কেদোয়াই পাকিস্তানের জাতীয় পতাকার নকশা প্রণয়ন করেন। নকশাটি ১৯০৬ সালের অল ইন্ডিয়া মুসলিম লীগের পতাকার উপর ভিত্তি করে তৈরি করা হয়। পাকিস্তান স্বাধীনতা লাভ করার ৫ দিন আগে ১৯৪৭ সালের ১১ই আগস্ট তারিখে এই পতাকাটির নকশা গৃহীত হয়।

উপসংহার :- পাকিস্তানের নাগরিক সমাজ মূলত শ্রেণিবদ্ধ, স্থানীয় ও সাংস্কৃতিক শিষ্টাচার এবং ব্যক্তিগত ও রাজনৈতিক জীবন পরিচালিত ঐতিহ্যবাহী ইসলামী মূল্যবোধের উপর জোর দেয়। পুরুষ ও মহিলা উভয়ের জন্য ঐতিহ্যবাহী পোশাক হ’ল শালওয়ার কামিজ। পুরুষদের জনপ্রিয় পোশাক হল ট্রাউজার্স, জিন্স এবং শার্ট।

(FAQ) পাকিস্তান দেশ সম্পর্কে জিজ্ঞাস্য?

১. পাকিস্থানের রাজধানীর নাম কি?

ইসলামাবাদ।

২. পাকিস্তানের জাতীয় ভাষা কি?

উর্দু।

৩. পাকিস্তান কবে স্বাধীনতা দিবস পালন করে?

১৫ আগস্ট।

৪. পাকিস্তানের বর্তমান রাষ্ট্রপতি কে?

আরিফ আলভী।

৫. পাকিস্তানের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী কে?

শাহবাজ শরিফ।

Leave a Reply

Translate »