শার্লামেনের কৃতিত্ব

শার্লামেনের কৃতিত্ব প্রসঙ্গে শার্লামেনের কর্মশক্তি, শার্লামেনের সাফল্য, শার্লামেনের সাম্রাজ্য সীমা, সংগঠক ও শাসক শার্লামেন, শার্লামেনের ব্যক্তিগত জীবন, শার্লামেনের ব্যক্তিত্ব, প্রকৃত স্থাপয়িতা শার্লামেন, সংস্কৃতি মনস্ক শার্লামেন ও ক্যারোলিঞ্জিয় রেনেসাঁসের পৃষ্ঠপোষক শার্লামেন সম্পর্কে জানবো।

শার্লামেনের কৃতিত্ব

ঐতিহাসিক ঘটনাশার্লামেনের কৃতিত্ব
বংশক্যারোলিঞ্জিয়
সাম্রাজ্যপবিত্র রোমান সাম্রাজ্য
রাজধানীআখেন
জীবনীকারআইনহার্ড
অভিযান৫৪ টি
শার্লামেনের কৃতিত্ব

ভূমিকা :- ‘Charles the Great’ যিনি শার্লামেন নামে পরিচিত ছিলেন, বিশ্ব ইতিহাসে একজন উল্লেখযোগ্য ব্যক্তিত্ব হিসাবে তাঁর নাম স্বর্ণাক্ষরে লেখা রয়েছে।

শার্লামেনের কর্মশক্তি

তিনি ইউরোপে একের পর এক অভিযান করেছেন। এর দ্বারা তাঁর উদ্যম ও কর্মশক্তির পরিচয় পাওয়া যায়। শাসনতান্ত্রিক দিক থেকে কিংবা বিজেতার দিক থেকে তিনি ছিলেন অনন্য। মধ্যযুগের অন্ধকারাচ্ছন্ন দিনগুলিকে দুরে সরিয়ে রেখে সাহিত্য এবং শিক্ষার দ্বারা ইউরোপে নতুন ধারার সৃষ্টি করেছিলেন। তিনি খ্রিস্টানদের হূণ, স্যারাসেন, স্যাক্সন ও স্লাভদের আক্রমণ থেকে রক্ষা করেছিলেন।

শার্লামেনের সাফল্য

মধ্যযুগের সম্রাটদের মধ্যে অন্যতম শ্রেষ্ঠ ছিলেন শার্লামেন। শার্লামেনের দীর্ঘ রাজত্বকাল তার সাফল্যের ইঙ্গিত বহন করে। শার্লামেন একজন সফল বিজেতা ছিলেন। অনুমান করা হয় তিনি প্রায় ৫৪টি অভিযানে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন।

শার্লামেনের সাম্রাজ্য সীমা

তিনি তাঁর সাম্রাজ্যকে উত্তরে Eder থেকে Ebro পর্যন্ত, দক্ষিণে Mediterranean থেকে Benevento, পশ্চিমে আটলান্টিক থেকে Drave এবং পূর্বে দানিয়ুব পর্যন্ত বিস্তার ঘটিয়েছিলেন। তিনি তাঁর সীমান্তগুলোকে রক্ষার ক্ষেত্রে তো বটেই বহিরাগতদের আক্রমণকেও প্রতিহত করেছিলেন।

সংগঠক ও শাসক শার্লামেন

শার্লামেন সংগঠক ও শাসক হিসাবে কৃতিত্বের স্বাক্ষর রেখেছিলেন। তাঁর মিসি ডোসিনিসি বা রাজকীয় প্রতিনিধি নিয়োগ এর বিষয়টি প্রশাসনিক ক্ষেত্রে সাফল্যের পরিচয়। “Holy Roman Empire”-এর সূচনার মধ্যে দিয়ে নতুন ধারণার উদ্ভব ঘটেছিল। সামন্ততন্ত্র সাম্রাজ্যবাদের বিস্তারের ক্ষেত্রে বাধাস্বরূপ ছিল। শার্লামেনের শাসনতান্ত্রিক ব্যবস্থায় নতুন ধারার সূচনা হওয়ায় সামন্ততন্ত্র দুর্বল হয়ে পড়েছিল।

ব্যক্তিগত জীবন

শার্লামেনের ব্যক্তিগত জীবন আলোচনা করতে হলে তার নয়টি পত্নীর কথা বলা যায়। তিনি এদের সাথে একের পর এক বিবাহবিচ্ছেদ করেছিলেন।

শার্লামেনের ব্যক্তিত্ব

  • (১) শার্লামেন এক উল্লেখযোগ্য ব্যক্তিত্বের অধিকারী ছিলেন। তিনি পণ্ডিতমনস্ক, সুবক্তা এবং কবি হিসাবে পরিচিত ছিলেন। তিনি ল্যাটিন, জার্মান ভাষায় কথা বলতে পারতেন এবং গ্রীকভাষা বুঝতে পারতেন। তার আগ্রহ ছিল সঙ্গীত, জ্যোতিষবিদ্যা, আইন প্রভৃতি বিষয়ে। কিন্তু তিনি কখনোই লেখার প্রতি মনোযোগী ছিলেন না। ভাষার ব্যাকরণের প্রতি তিনি দৃষ্টি দিতেন।
  • (২) Abbot এবং বিশপদের লেখাগুলি অনুভূতির দিক থেকে সঠিক হলেও ব্যাকরণের দিক থেকে ত্রুটিপূর্ণ ছিল বলে তিনি মনে করতেন। শিক্ষাক্ষেত্রে তিনি পৃষ্ঠপোষকতা করেছিলেন। প্রত্যেকটি মঠে বিদ্যালয় চালু করার নির্দেশ দিয়েছিলেন। পুরাতন নথিপত্রগুলো পুনরায় লেখার নির্দেশ দিয়েছিলেন। জীবনী, ইতিহাস লেখার প্রতিও তিনি নির্দেশ দিয়েছিলেন।

প্রকৃত স্থাপয়িতা শার্লামেন

শার্লামেন আখেনে ক্যাথিড্রাল নির্মাণ করেছিলেন। এছাড়া Aachen, Engelheim, Nimwegen-এ প্রাসাদ তৈরী করেন। মেইনজ শহরে বড় সেতু তৈরি করেন। রাইন এবং দানিয়ুবকে সংযোগ করার ক্ষেত্রে একটি জলপথ তৈরি করেছিলেন। স্থাপত্য শিল্পের ক্ষেত্রে তিনি Romanesque পদ্ধতির প্রচলন করেন।

সংস্কৃতি মনস্ক শার্লামেন

সম্রাট শার্লামেনের জীবনীকার ছিলেন আইনহার্ড। তাঁর লেখা ‘ভিটা ক্যারোলি’। ‘ভিটা কারোলি’ আইনহার্ডের গদ্য রচনাশৈলীর অন্যতম নিদর্শন ছিল। সম্রাট শার্লামেনের সময়কার বিখ্যাত মনীষী ছিলেন হিকমার। “দ্য অ্যানালস্” হিকমার-এর লেখা একটি বিখ্যাত রচনা। তিনি আইন ও ইতিহাস সম্পর্কিত রচনার জন্য খ্যাতি অর্জন করেছিলেন।

ক্যারোলিঞ্জিয় রেনেসাঁসের পৃষ্ঠপোষক শার্লামেন

ক্যারোলিঞ্জিয় রেনেসাঁসের পৃষ্ঠপোষক ছিলেন শার্লামেন। শার্লামেনের রাজসভার কবি ও বাইবেল বিশেষজ্ঞ অ্যাঞ্জিলবার্ট ‘হোমার’ নামে পরিচিত ছিল। পল দ্য ডিকন ছিলেন পণ্ডিত ও ঐতিহাসিক। শার্লামেনের রাজত্বকালের এই পণ্ডিত ‘লোম্বার্ডদের ইতিহাস’ নামক একটি তথ্যসম্বলিত গ্রন্থ রচনা করেছিলেন।

উপসংহার :- শার্লামেন তাঁর সাম্রাজ্যের বিস্তার করেই থেমে থাকেন নি। সাম্রাজ্যকে সুগঠিত ও শক্তিশালী করে গড়ে তুলেছিলেন।

(FAQ) শার্লামেনের কৃতিত্ব সম্পর্কে জিজ্ঞাস্য?

১. বিশ্ব ইতিহাসে ‘Charles the Great’ কি নামে পরিচিত ছিলেন?

শার্লামেন।

২. শার্লামেন কতগুলি অভিযানে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন?

প্রায় ৫৪ টি।

৩. শার্লামেনের সাম্রাজ্য কি নামে পরিচিত ছিল?

পবিত্র রোমান সাম্রাজ্য।

৪. শার্লামেনের জীবনীকার কে ছিলেন?

আইনহার্ড।

অন্যান্য ঐতিহাসিক ঘটনাগুলি

Leave a Comment