মোপালা বিদ্রোহ

মোপালাদের পরিচিতি, মোপালা বিদ্রোহ, বিদ্রোহের কারণ, প্রথম, দ্বিতীয়, তৃতীয়, চতুর্থ ও সর্বশেষ মোপালা বিদ্রোহ, নেতৃত্ব, আন্দোলনের গণরূপ, গান্ধীর কালিকট সফর, দক্ষিণ ভারতের জাতীয়তাবাদী বিদ্রোহ, ওয়াগন ট্র্যাজেডি, বিদ্রোহের ব্যর্থতাও ফলাফল সম্পর্কে জানবো।

মোপালা বিদ্রোহ

সময়কাল১৮৭৩-১৮৯৬ খ্রিস্টাব্দ
স্থানদক্ষিণ ভারতের মালাবার উপকূল
নেতৃত্বভারিয়ামকুন্নাথ কুঞ্জহামহাদ হাজী
ফলাফলব্যর্থতা
মোপালা বিদ্রোহ

ভূমিকা :- মোপলা বিদ্রোহ বা মালাবার আন্দোলন ছিল ব্রিটিশ সাম্রাজ্যবাদী শাসন এবং তৎকালীন হিন্দুদের বিরূদ্ধে মুসলমান মোপালা সম্প্রদায়ের কৃষক সংগ্রাম, যা দক্ষিণ ভারতের মালাবার অঞ্চলের মাপিলা মুসলমান এবং মাপ্পিলা বিদ্রোহীদের মধ্যে পুরো ১৯ শতক ধরে এবং ২০ শতকের শুরুর দিক পর্যন্ত চলতে থাকে।

পরিচিতি

দক্ষিণ ভারতের মালাবার উপকূলে আরবের বহু বণিক স্থায়ীভাবে বসবাস করত। তাদের বংশধররাই মোপালা নামে পরিচিত।

মোপালা বিদ্রোহ

কৃষিজীবী মোপালারা অত্যাচারী জমিদারদের বিরুদ্ধে যে বিদ্রোহ করেছিল ইতিহাসে তা মোপালা বিদ্রোহ (১৮৭৩-১৮৯৬ খ্রিঃ) নামে পরিচিত।

মোপালা বিদ্রোহের কারণ

বিভিন্ন কারণে মোপালারা বিদ্রোহ করেছিল। এই কারণগুলি হল

(১) রাজস্বের চড়া হার

মোপালারা ছিল মূলত কৃষিজীবী। টিপু সুলতানের পরাজয়ের পর ব্রিটিশ কোম্পানির বদান্যতায় জমিদাররা তাদের জমি দখল করে। জমিদাররা নতুন করে চড়া হারে মোপালাদের কাছ থেকে রাজস্ব আদায় করতে থাকলে মোপালারা বিদ্রোহী হয়ে ওঠে।

(২) ধর্মীয় ইন্ধন

ধর্মসূত্রে মোপালারা ছিল মুসলমান। অন্যদিকে স্থানীয় জমিদারদের অধিকাংশই ছিল হিন্দু। তাই বিদ্রোহের পিছনে ধর্মীয় ইন্ধনও কাজ করেছিল।

প্রথম মোপালা বিদ্রোহ

মালাবার উপকূলের মোপালা কৃষিজীবী সম্প্রদায় ১৮৭৩ খ্রিস্টাব্দে প্রথম বিদ্রোহ ঘোষণা করে।

দ্বিতীয় মোপালা বিদ্রোহ

১৮৮৫ সালে দ্বিতীয় মোপলা বিদ্রোহ হয় যা দমন করতে ব্রিটিশ সরকার তিন হাজার সৈন্য ও আধুনিক অস্ত্রশস্ত্র নিয়োগ করে। এই দ্বিতীয় বিদ্রোহ দেড় বছর স্থায়ী হয়। বিদ্রোহীদের পরাজয় ঘটে।

দ্বিতীয় মোপালা বিদ্রোহ দমন

দ্বিতীয় মোপালা বিদ্রোহ নির্মম ভাবে দমন করা হয় ‘পিটুনি কর’ বসিয়ে ও দ্বীপান্তর পাঠিয়ে।

তৃতীয় ও চতুর্থ মোপালা বিদ্রোহ

১৮৯৪ সালে তৃতীয় মোপলা বিদ্রোহ এবং ১৮৯৬ সালে চতুর্থ মোপলা বিদ্রোহ ঘটে। সবকটি বিদ্রোহই কঠোর ও নির্মম হাতে দমন করা হয়।

নেতৃত্ব

তিরুঙ্গাডির মালব্রুমের তালঙ্গদের নেতা সৈয়দ আলাবি ও তাঁর পুত্র সৈয়দ ফদল ক্রমশ মোপালা সমাজের ধর্মীয় তথা রাজনৈতিক আন্দোলনের নেতা হয়ে ওঠেন। কেরালার মালাবার অঞ্চলে ব্রিটিশদের বিরুদ্ধে মোপলা বিদ্রোহের নেতৃত্ব দিয়েছিলেন মুক্তিযোদ্ধা ভারিয়ামকুন্নাথ কুঞ্জহামহাদ হাজী।

শেষ মোপালা বিদ্রোহ

১৯২১ সালের আগস্ট মাসে মোপলারা আবার বিদ্রোহী হয় ও স্বাধীন খেলাফত রাজ্য স্থাপন করে।

আন্দোলনের গণরূপ

চেরুমর নামে অস্পৃশ্য সম্প্রদায় মোপালা বিদ্রোহে যোগ দিলে দক্ষিণ মালাবারে ভাল্লুভেনাড় ও এলেনাড় তালুকে মোপালা আন্দোলন গণরূপ ধারণ করে।

গান্ধীজীর কালিকট সফর

সালের আগস্ট মাসে মহাত্মা গান্ধী ভারতের খিলাফৎ আন্দোলন -এর নেতা শওকত আলীর সাথে মালবারের বাসিন্দাদের মধ্যে অসহযোগ ও খেলাফতের সম্মিলিত বার্তা ছড়িয়ে দিতে কালিকট সফর করেছিলেন।

অসহযোগ আন্দোলন সমর্থন

গান্ধীর আহ্বানের প্রতিক্রিয়া হিসাবে ধর্মীয় প্রধান পোনানির মহাদুম তাঙ্গালের অধীনে মালবার এবং ম্যাপিলাসে তাদের খেলাফত কমিটি গঠন করা হয়েছিল, যারা অসহযোগ আন্দোলন সমর্থন করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।

দক্ষিণ ভারতের জাতীয়তাবাদী বিদ্রোহ

এই বিদ্রোহকে প্রায়শই দক্ষিণ ভারতে জাতীয়তাবাদী বিদ্রোহের প্রথম ঘটনাগুলির মধ্যে একটি বলে মনে করা হয়।

ওয়াগন ট্র্যাজেডি

১৯২১ সালের নভেম্বরে তিরুর থেকে পোদানুরের কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দী মোপালাদের বন্ধ মালবাহী গাড়িতে করে নিয়ে যাওয়ার সময় 67 জন মোপালা বন্দী শ্বাসরুদ্ধ হয়ে নিহত হন। এই ঘটনা ওয়াগন ট্র্যাজেডি নামে পরিচিত।

ব্যর্থতার কারণ

এই বিদ্রোহের ব্যর্থতার কারণ হল বিচ্ছিন্ন বসতি ও অনুন্নত যোগাযোগ ব্যবস্থা ।

মোপলা বিদ্রোহের ফলাফল

  • (১) মোপালা বিদ্রোহের তীব্রতায় ভীত হয়ে ব্রিটিশ সরকার মহাজনদের বর্ধিত হারে সুদ ও জমিদারদের বর্ধিত হারে খাজনা আদায় বন্ধ করতে নির্দেশ দেয়।
  • (২) মোপলাদের ওপর খাজনা ও সুদের হার নির্দিষ্ট করে দেওয়া হয়।

উপসংহার:- ব্রিটিশ সরকার এই বিদ্রোহকে সাম্প্রদায়িক রূপ দেওয়ার চেষ্টা করে ও কিয়দংশে সফল হয়। দেশের বুদ্ধিজীবী মহলের বৃহৎ অংশ মোপলাদের ওপর ভয়াবহ অত্যাচার প্রসঙ্গে নীরব থাকেন।

(FAQ) মোপালা বিদ্রোহ সম্পর্কে জিজ্ঞাস্য?

১. মোপালা বিদ্রোহ কখন হয়?

১৯২১ খ্রিস্টাব্দে।

২. মোপলা বিদ্রোহ কোথায় শুরু হয়?

দক্ষিণ ভারতের মালাবার উপকূলে।

৩. মোপালা বিদ্রোহ কেন হয়েছিল?

ইংরেজদের বলপূর্বক চাপিয়ে দেওয়া বিপুল রাজস্বের বোঝা স্থানীয় জমিদারদের তীব্র শোষণ ও অত্যাচার এবং ঋণের জালে জর্জরিত করা ছিল মোপলাদের বারংবার বিদ্রোহের কারন।

Leave a Reply

Translate »