প্রথম নরসিংহ বর্মন

পল্লব রাজা প্রথম নরসিংহ বর্মন প্রসঙ্গে পল্লব চালুক্য দ্বন্দ্ব, বাতাপি দখল, জয়স্তম্ভ স্থাপন, সিংহলে পরোক্ষ প্রভাব, মন্দির নির্মাণ, বিখ্যাত বন্দর ও রাজধানী সম্পর্কে জানবো।

প্রথম নরসিংহ বর্মন

রাজা প্রথম নরসিংহ বর্মন
রাজত্ব ৬৩০-৬৬৮ খ্রি
বংশ পল্লব বংশ
রাজধানী কাঞ্চী
পূর্বসূরি প্রথম মহেন্দ্রবর্মন
উত্তরসূরি দ্বিতীয় মহেন্দ্রবর্মন
প্রথম নরসিংহ বর্মন

ভূমিকা :- পিতা মহেন্দ্রবর্মনের মৃত্যুর পর, নরসিংহ বর্মন পল্লব সিংহাসনে বসেন। তিনি “মহামল্ল” উপাধি গ্ৰহণ করেন। তাঁর শাসনকালে পল্লব শক্তি ও সভ্যতা শীর্ষ সীমায় ওঠে। নরসিংহবর্মনকে এজন্য পল্লব বংশের শ্রেষ্ঠ রাজা বলা যায়।

পল্লব চালুক্য দ্বন্দ্ব

নরসিংহ বর্মন চালুক্য শক্তির সঙ্গে পৈত্রিক দ্বন্দ্ব চালিয়ে যান। ডঃ মহালিঙ্গম আইহোল লিপির সাক্ষ্যের ভিত্তিতে মনে করেন যে, প্রথম নরসিংহ বর্মন তার রাজত্বের গোড়ার দিকে চালুক্য দ্বিতীয় পুলকেশীর হাতে পরাস্ত হন। কিন্তু তারপর নরসিংহ বর্মন দ্রুত শক্তি বৃদ্ধি করেন।

মণিমঙ্গলমের যুদ্ধ

চালুক্য দ্বিতীয় পুলকেশী চোলদের সঙ্গে মিত্রতা স্থাপন করে তুঙ্গভদ্রা পার হয়ে পল্লব রাজ্য আক্রমণ করেন। চোলরা চালুক্যদের সাহাযে পল্লব শক্তি খর্ব করতে চেষ্টা করে। কিন্তু নরসিংহ বর্মন মণিমঙ্গলমের যুদ্ধে দ্বিতীয় পুলকেশীকে পিছু হঠতে বাধ্য করেন।

বাতাপি দখল

তুঙ্গভদ্রার দক্ষিণে পারিয়ালের যুদ্ধে তিনি পুনরায় পুলকেশীকে পরাস্ত করেন। এরপর তিনি নিজে তুঙ্গভদ্রা পার হয়ে চালুক্য রাজধানী বাতাপি অধিকার করেন (৬৪২ খ্রি) এবং “বাতাপিকোণ্ড” উপাধি নেন।

দ্বিতীয় পুলকেশীর মৃত্যু

নরসিংহের সেনাপতি শিরুতোণ্ড চালুক্য রাজ্যের কিছু অংশ বেশ কিছুকাল অধিকার করেন। বাতাপির যুদ্ধে দ্বিতীয় পুলকেশী সম্ভবত নিহত হন। তার পর মহীশূরের গঙ্গ রাজ্যও নরসিংহ জয় করেন।

জয়স্তম্ভ স্থাপন

নরসিংহ বর্মন বাতাপিতে জয়স্তস্ত স্থাপন ও বাতাপি লিপি খোদাই করেন। ডঃ মহালিঙ্গমের মতে, বাতাপি যুদ্ধের পর আর দ্বিতীয় পুলকেশীর নাম শোনা যায়নি। সম্ভবত এই যুদ্ধে তাঁর মৃত্যু হয়। চালুক্য শক্তি এর পর কিছুকাল হতবল হয়ে পড়ে।

সিংহলে পরোক্ষ প্রভাব

দক্ষিণে চোল, কেরল, পাণ্ড্য ও কলভ্র শক্তিকে নরসিংহ পরাস্ত করেন। সিংহলে দুইটি নৌ অভিযান পাঠিয়ে তিনি তার অনুগত মানব বর্মনকে সিংহলের সিংহাসনে বসিয়ে দেন। সিংহলী মহাবংশের বিবরণ অনুসারে মানব বর্মন চালুক্য যুদ্ধে নরসিংহ বর্মনকে সাহায্য করেন। যাই হোক, সিংহলে নরসিংহের পরোক্ষ প্রভাব স্থাপিত হয়।

চালুক্য শক্তির সংহতি

সম্ভবত প্রথম নরসিংহের রাজত্বের শেষ দিকে চালুক্য প্রথম বিক্রমাদিত্য চালুক্য শক্তিকে সংহত করে পল্লব রাজ্যের উত্তরের কিছু অংশ অধিকার করেন।

মন্দির নির্মাণ

মহাবলীপুরমের মন্দিরগুলি নরসিংহ বর্মনের আমলে তৈরি হয়। পাহাড় কেটে রথের আকারে এই মন্দির তৈরি হয়। এছাড়া ত্রিচিনোপল্লী ও পদুকোট্টাই অঞ্চলেও তিনি বহু মন্দির তৈরি করেন।

বিখ্যাত বন্দর ও রাজধানী

মহাবলীপুরমকে বিখ্যাত পল্লব বন্দর রূপে তিনি গড়ে তোলেন। নরসিংহের রাজত্বকালে হিউয়েন সাঙ কাঞ্চীতে আসেন (৬৪০ খ্রি)। হিউয়েন সাং-এর মতে, কাঞ্চী ছিল ৬ মাইল পরিধির এবং নগরে অসংখ্য বৌদ্ধ মঠ ছিল। এই মঠগুলিতে বহু বৌদ্ধ ভিক্ষু বসবাস করত। কাঞ্চীতে দিগম্বর জৈন সম্প্রদায়ের বহু মন্দিরও ছিল।

উপসংহার :- কাঞ্চীর সংস্কৃত শিক্ষার খ্যাতি ছিল। ভারতের অন্যতম শ্রেষ্ঠ নগর ছিল কাঞ্চী। নাগরিকরা ছিল সত্যবাদী ও শিক্ষার অনুরাগী।

(FAQ) প্রথম নরসিংহ বর্মন সম্পর্কে জিজ্ঞাস্য?

১. পল্লব বংশের শ্রেষ্ঠ রাজা কে ছিলেন?

প্রথম নরসিংহ বর্মন।

২. কোন পল্লব রাজার সময় হিউয়েন সাঙ কাঞ্চী ভ্রমণ করেন?

প্রথম নরসিংহ বর্মন।

৩. চালুক্য দ্বিতীয় পুলকেশীকে পরাজিত করেন কে?

প্রথম নরসিংহ বর্মন।

৪. মহাবলীপুরমের মন্দির গুলি কার আমলে তৈরি হয়?

প্রথম নরসিংহ বর্মন।

Leave a Reply

Translate »