নহপান

শক রাজা নহপান প্রসঙ্গে ক্ষহরত শ্রেষ্ঠ, সময়কাল, রাজধানী, রাজ্যের বিস্তার, সাতবাহনদের সঙ্গে যুদ্ধ, রাজ্যভুক্ত অঞ্চল, সেনাপতি, ধর্ম ও তার সময়ে বাণিজ্য সম্পর্কে জানবো।

রাজা নহপান

ঐতিহাসিক চরিত্র নহপান
রাজা নহপান
পরিচয় শক-ক্ষত্রপ
শাখা ক্ষহরত
রাজধানী ভৃগুকচ্ছ বা মান্দাসর
পরাজিত গৌতমীপুত্র সাতকর্ণি
নহপান

ভূমিকা :- ভারত -এ আগত শক জাতির দুটি প্রধান শাখা ছিল – ক্ষহরত ও কার্দমক। বিখ্যাত ক্ষহরত ক্ষত্রপ ছিলেন নহপান। নহপান সম্পর্কে নাসিক শিলালিপি, পেরিপ্লাসের রচনা এবং জোগালথম্বিতে নহপানের মুদ্রা সংগ্রহ থেকে বহু তথ্য পাওয়া যায়।

ক্ষহরত শ্রেষ্ঠ

ক্ষহরত গোষ্ঠীর সর্বশ্রেষ্ঠ ক্ষত্রপ ছিলেন নহপান। তিনি মহাক্ষত্রপ উপাধি নেন। তিনি ভূমকের মতই মুদ্রায় একটি সন ব্যবহার করতেন। পণ্ডিতদের মতে, এটি ছিল শকাব্দ। কণিষ্ক ৭৮ খ্রিস্টাব্দে এটি প্রচলন করেন।

সময়কাল

নহপান সাতবাহন রাজা গৌতমীপুত্র সাতকর্ণীর সমকালীন ছিলেন। টমাসের মতে, নহপান নামটিতে পারসিক প্রভাব দেখা যায়।

রাজধানী

নহপানের রাজধানী ছিল হয় ভূগুকচ্ছ অথবা মান্দাসর।

রাজ্যের বিস্তার

নহপানের জামাতা ঋষভদত্ত মালব বা রাজপুতানার কিছু অংশ জয় করে নহপানের রাজ্যের সীমা বৃদ্ধি করেন। নহপানের রাজ্য রাজপুতানা থেকে কাথিয়াবাড় হয়ে মহারাষ্ট্র পর্যন্ত বিস্তৃত ছিল।

সাতবাহনদের সঙ্গে যুদ্ধ

জোগালথাম্বিতে প্রাপ্ত নহপানের মুদ্রায় তার নাম কেটে ফেলা হয়েছে। এর থেকে অনুমান করা হয় যে সাতবাহন রাজা গৌতমীপুত্র সাতকর্ণী নহপানকে ১২৪-২৫ খ্রিস্টাব্দে পরাস্ত করেন। গৌতমীপুত্রের নাসিক শিলালিপি থেকেও এই কথার সমর্থন পাওয়া যায়। নহপানের সঙ্গে সাতবাহন রাজ গৌতমীপুত্র সাতকর্ণীর সংঘর্ষ ঘটে বলে নাসিক প্রশস্তি থেকে জানা যায়। গৌতমীপুত্র যুদ্ধে নহপানকে পরাজিত ও নিহত করেন।

রাজ্যভুক্ত অঞ্চল

  • (১) ডঃ জে. এন. ব্যানার্জির মতে দক্ষিণ গুজরাট, ভারুচ থেকে সোপারা পর্যন্ত বিস্তৃত উত্তর কোঞ্চন, মহারাষ্ট্রের পুনা, নাসিক অঞ্চল নহপানের রাজ্যভুক্ত ছিল। এই শেষের অঞ্চলটি তিনি সাতবাহনদের উচ্ছেদ করে রাজ্যভুক্ত করেন।
  • (২) এছাড়া সৌরাষ্ট্র বা উত্তর গুজরাট, কুকুর বা দক্ষিণ রাজপুতানাও তাঁর জামাতা ঋষভ দত্ত জয় করেন। আকর ও অবন্তী বা মালবের কিছু অংশও তাঁর রাজ্যভুক্ত হয়। এমনকি রাজপুতানার পুস্কর হ্রদের অঞ্চলও তিনি অধিকার করেন।

সেনাপতি

নহপানের কন্যা দক্ষমিত্রাকে তিনি সেনাপতি ঋষভদত্তের সঙ্গে বিবাহ দেন। ঋষভদত্ত আজমীরের পুস্কর অঞ্চল জয় করে পুস্করতীর্থে বহু অর্থ দান করেন।

ধর্ম

নহপান ছিলেন হিন্দুধর্মাবলম্বী শক ক্ষত্রপ। তিনি বহু তীর্থস্থানে পরিভ্রমণ করেন এবং হিন্দু ও বৌদ্ধ তীর্থে বহু দান-ধ্যান করেন।

বাণিজ্য

তার অধীনস্থ ভূগুকচ্ছ বা বারিগাজা বন্দর থেকে পশ্চিম এশিয়া ও ইউরোপ -এর সঙ্গে বাণিজ্য চলত। পেরিপ্লাস অফ দি এরিথ্রিয়ান সি নামক গ্রন্থে বারিগাজা বন্দরে নহপানের আমলে আমদানি ও রপ্তানি দ্রব্যের তালিকা পাওয়া যায়। তাতে দেখা যায় যে, নর্তকী, গায়ক, বিলাতী মদ ও প্রসাধন দ্রব্য বারিগাজায় আমদানী করা হত।

উপসংহার :- নহপান ব্রাহ্মণদের ভূমি দান করতেন বলে জানা যায়। জৈন গ্রন্থকার ভদ্রবাহুর রচনা অবশ্যাক সূত্র নিযুক্তি থেকে নহপানের প্রভূত সম্পদের কথা জানা যায়। ভদ্রবাহু নহপানের রাজ্যের ওপর সাতবাহন রাজার বারবার আক্রমণের কথাও বলেছেন।

(FAQ) নহপান সম্পর্কে জিজ্ঞাস্য?

১. শকদের ক্ষহরত শাখার শ্রেষ্ঠ রাজা কে ছিলেন?

নহপান।

২. শক-ক্ষত্রপ নহপান কি উপাধি ধারণ করেন?

মহাক্ষত্রপ।

৩. শক-ক্ষত্রপ নহপান কার কাছে পরাজিত হন?

গৌতমীপুত্র সাতকর্ণী।

৪. নহপানের রাজধানী কোথায় ছিল?

ভৃগুকচ্ছ বা মান্দাসর।

Leave a Comment