দ্বিতীয় গোলটেবিল বৈঠক

দ্বিতীয় গোলটেবিল বৈঠক -এর অনুরোধ, সময়কাল, ইংল্যান্ডের রাজনৈতিক পরিস্থিতি, বৈঠকে ভারতের প্রতিনিধি, গান্ধীজির দাবি, বিভিন্ন দলের দাবি, বৈঠকের ব্যর্থতা ও গান্ধীজির দেশে প্রত্যাগমন সম্পর্কে জানবো।

দ্বিতীয় গোলটেবিল বৈঠক

সময়কাল৭ ই  সেপ্টেম্বর – ১ লা ডিসেম্বর, ১৯৩১ খ্রিস্টাব্দ
স্থানলণ্ডন
ভারতের প্রতিনিধিমহাত্মা গান্ধী, সরোজিনী নাইডু
ফলাফলব্যর্থতা
দ্বিতীয় গোলটেবিল বৈঠক

ভূমিকা :- ব্রিটিশ সরকারের সাইমন কমিশন ভারতের সংবিধান সংশোধনের লক্ষ্যে ১৯৩০ সাল থেকে ১৯৩২ সালের মধ্যে তিনবার গোল টেবিল বৈঠক করে। এগুলি প্রথম গোলটেবিল বৈঠক, দ্বিতীয় গোলটেবিল বৈঠক ও তৃতীয় গোলটেবিল নামে পরিচিত।

বৈঠকের অনুরোধ

লর্ড আরউইন ভাইসরয় ও তার বন্ধু তৎকালীন ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী রামসে ম্যাকডোনাল্ড এর কাছে মহাম্মদ আলী জিন্নার অনুরোধের কারণে এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছিল।

বৈঠকের সময়কাল

১৯৩১ খ্রিস্টাব্দের সেপ্টেম্বরে লণ্ডনে দ্বিতীয় গোলটেবিল বৈঠক বসে। ৭ ই সেপ্টেম্বর থেকে ১ লা ডিসেম্বর পর্যন্ত এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

ইংল্যান্ডের রাজনৈতিক পরিস্থিতি

এই সময়ে ইংল্যান্ডের রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে বেশ কিছু পরিবর্তন ঘটেছে।

  • (১) ইংল্যান্ডে শ্রমিক সরকারের স্থলে রক্ষণশীল দলের সহযোগিতায় রামসে ম্যাকডোনাল্ড একটি জাতীয় সরকার গঠন করেন। ফলে তিনি শ্রমিক দল থেকে বিতাড়িত হন এবং শ্রমিক দল তাঁর বিরোধিতা করতে থাকে।
  • (২) রক্ষণশীল নেতা স্যামুয়েল হোর ভারত সচিব নিযুক্ত হন এবং লর্ড ওয়েলিংডন বড়লাট হয়ে ভারতে আসেন। ভারতীয় আশা আকাঙ্ক্ষার প্রতি রক্ষণশীল দলের বিন্দুমাত্র সহানুভূতি ছিল না।
  • (৩) বৈঠক আরম্ভ হওয়ার পূর্ব থেকেই লর্ড ডায়েলিংডন গান্ধী আরউইন চুক্তির শর্তাদি ভঙ্গ করতে থাকেন।

বৈঠকে ভারতের প্রতিনিধি

কংগ্রেসের পক্ষে একমাত্র গান্ধীজি এবং ভারতীয় নারী সমাজের পক্ষে সরোজিনী নাইডু এই বৈঠকে যোগ দেন।

গান্ধীজির দাবি

মহাত্মা গান্ধী ভারত -এর কেন্দ্র ও প্রদেশগুলিতে দায়িত্বশীল সরকার গঠন এবং অর্থ, সেনা, প্রতিরক্ষা ও পররাষ্ট্র বিষয়ে সরকারের পূর্ণ ক্ষমতা দাবি করেন।

মহাত্মা গান্ধীর বক্তব্য

গান্ধীজি বলেন যে, বড়লাট সরকারের নিয়মতান্ত্রিক প্রধানই হবেন, অন্য কিছু নয়। সরকার তা মানতে অসম্মত হলেও গান্ধীজি তাঁর দাবিতে অটল ছিলেন।

বিভিন্ন দলের দাবি

সরকারি প্ররোচনায় মুসলিম লীগ, অনুন্নত শ্রেণী, অ্যাংলো-ইন্ডিয়ান, ভারতীয় খ্রিস্টান, ইউরোপীয় বণিক সম্প্রদায় ও অপরাপর সংখ্যালঘু সম্প্রদায় নিজেদের স্বার্থের অনুকূলে নানা দাবি উত্থাপন করতে থাকে।

বৈঠকের ব্যর্থতা

শত চেষ্টাতেও গান্ধীজি বিভিন্ন দলের প্রতিনিধিদের ঐক্যমতে আনতে ব্যর্থ হন। ফলে দ্বিতীয় গোলটেবিল বৈঠক ব্যর্থ হয়। ২৮ শে ডিসেম্বর ১৯৩১ খ্রিস্টাব্দে ‘শূন্য হাতে’ গান্ধীজি দেশে ফেরেন।

উপসংহার :- দ্বিতীয় গোলটেবিল বৈঠকের ব্যর্থতার পর ১৯৩২ খ্রিস্টাব্দের ১৭ই নভেম্বর অনুষ্ঠিত তৃতীয় গোলটেবিল বৈঠকে কংগ্রেস আর যোগদান করে নি।

(FAQ) দ্বিতীয় গোলটেবিল বৈঠক সম্পর্কে জিজ্ঞাস্য?

১. দ্বিতীয় গোলটেবিল বৈঠকের সময়কাল কত?

১৯৩১ খ্রিস্টাব্দের ৭ ই সেপ্টেম্বর থেকে ১ লা ডিসেম্বর পর্যন্ত।

২. দ্বিতীয় গোলটেবিল বৈঠক কোথায় আয়োজিত হয়?

লণ্ডনে।

৩. দ্বিতীয় গোলটেবিল বৈঠকে যোগ দিতে কোন মহিলা ইংল্যান্ডে যান?

সরোজিনী নাইডু।

৪. দ্বিতীয় গোলটেবিল বৈঠকে জাতীয় কংগ্রেসের সদস্য হিসেবে কে যোগ দেন?

মহাত্মা গান্ধী।

Leave a Reply

Translate »