প্রতিহার সাম্রাজ্যের গুরুত্ব

প্রতিহার সাম্রাজ্যের গুরুত্ব প্রসঙ্গে ডঃ মজুমদারের মন্তব্য, উত্তর ভারতের ঐক্য রক্ষা, বিজেতা ও সমর বিশারদ, অখণ্ড সাম্রাজ্যের আদর্শ, আরব আক্রমণ প্রতিরোধ ও তুর্কী আক্রমণে বাধা প্রদান সম্পর্কে জানবো।

প্রতিহার সাম্রাজ্যের গুরুত্ব

বিষয় প্রতিহার সাম্রাজ্যের গুরুত্ব
বংশ প্রতিহার বংশ
প্রতিষ্ঠাতা হরিচন্দ্র
শ্রেষ্ঠ রাজা মিহির ভোজ
শেষ রাজা রাজ্যপাল
প্রতিহার সাম্রাজ্যের গুরুত্ব

ভূমিকা :- ৬৪৭ খ্রিস্টাব্দে হর্ষবর্ধনের মৃত্যু হলে উত্তর ভারতে সর্বশেষ কেন্দ্রীয় শক্তির পতন ঘটে। হর্ষবর্ধনের পর যে আঞ্চলিক শক্তিগুলির উদ্ভব হয় তাদের মধ্যে বাংলার পাল শক্তি ও প্রতিহার শক্তি বিশেষ উল্লেখযোগ্য।

ডঃ মজুমদারের মন্তব্য

ঐতিহাসিক ডঃ আর সি মজুমদার মন্তব্য করেছেন যে, “প্রতিহার সাম্রাজ্যের ব্যাপকতা হর্ষবর্ধনের সাম্রাজ্য অপেক্ষা কোনো অংশে কম ছিল না”।

উত্তর ভারতের ঐক্য রক্ষা

হর্ষবর্ধনের মৃত্যুর পরে উত্তর ভারতের রাজনৈতিক ঐক্য ভেঙে পড়লে প্রতিহার সাম্রাজ্য অন্তত কিছুদিনের জন্য এই ঐক্য রাখতে সক্ষম হয়।

বিজেতা ও সমর বিশারদ

ঐতিহাসিক ডঃ আর সি মজুমদার প্রতিহার সাম্রাজ্যকে প্রাচীন ভারতের শেষ হিন্দু সাম্রাজ্য বলে অভিহিত করেছেন। প্রতিহার বংশে প্রকৃতই কয়েকজন সমর-বিশারদ ও বিজেতার আবির্ভাব হয়েছিল। এঁদের মধ্যে দ্বিতীয় নাগভট্ট, প্রথম ভোজের নাম সর্বোপেক্ষা উল্লেখযোগ্য।

অখণ্ড সাম্রাজ্যের আদর্শ

গুপ্ত সম্রাটদের মত প্রতিহাররাও অখণ্ড সাম্রাজ্যের আদর্শ রক্ষা করার চেষ্টা করেন। এক্ষেত্রে আশু সফল না হলেও প্রতিহার রাজা মিহির ভোজের আমলে সাম্রাজ্যের ব্যাপক বিস্তার ঘটেছিল।

আরব আক্রমণ প্রতিরোধ

  • (১) প্রতিহার রাজারা আরব আক্রমণ থেকে ভারতকে রক্ষা করার ব্যাপারে উল্লেখ্য ভূমিকা নেন। যদি প্রতিহার শক্তি সিন্ধু থেকে আরব আক্রমণ প্রতিহত না করত তবে আরব শক্তি সহজেই ভারতের ভেতর ঢুকবার সুযোগ পেত।
  • (২) প্রতিহার রাজাদের তীব্র বাধার ফলে আরবরা এগিয়ে আসতে পারে নি। এই কারণে আরব পর্যটক সুলেমান প্রতিহার রাজা ভোজকে “ইসলামের প্রধান শত্রু” বলে বর্ণনা করেছেন।

তুর্কী আক্রমণে বাধা প্রদান

প্রতিহার শক্তি ক্ষয়িষ্ণু হলেও রাজ্যপাল প্রতিহার তুর্কী আক্রমণকারী সুলতান মামুদকে বাধাদানের চেষ্টা করেন।

উপসংহার :- প্রতিহার রাজারা শিক্ষা ও সংস্কৃতির পৃষ্ঠপোষক ছিলেন। বিখ্যাত লেখক রাজশেখর মহেন্দ্রপাল প্রতিহারের রাজসভায় ছিলেন।

(FAQ) প্রতিহার সাম্রাজ্যের গুরুত্ব সম্পর্কে জিজ্ঞাস্য?

১. প্রতিহার সাম্রাজ্যকে হর্ষবর্ধনের সাম্রাজ্যের সাথে তুলনা করেছেন কে?

রমেশচন্দ্র মজুমদার।

২. প্রতিহার বংশের শ্রেষ্ঠ রাজা কে?

প্রথম ভোজ বা মিহির ভোজ।

৩. কোন আরব পর্যটক প্রতিহার রাজ্যে আসেন?

সুলেমান।

৪. সুলেমান কাকে ইসলামের প্রধান শত্রু বলেছেন?

প্রতিহার রাজা প্রথম ভোজ বা মিহির ভোজ।

Leave a Reply

Translate »