ভারতবর্ষের আদি জনগোষ্ঠীসমূহ

ভারতবর্ষের আদি জনগোষ্ঠীসমূহ প্রসঙ্গে তাদের শ্রেণীবিভাগ, নেগ্ৰিটো, প্রোটো-অস্ট্রোলয়েড, মঙ্গোলয়েড, ভূমধ্যসাগরীয়, পশ্চিম ব্রাকিসিফেলা ও নর্ডিক গোষ্ঠী সম্পর্কে জানবো।

ভারতবর্ষের আদি জনগোষ্ঠীসমূহ

ঐতিহাসিক বিষয়ভারতবর্ষের আদি জনগোষ্ঠীসমূহ
নেগ্ৰিটোনাগা, কদর
প্রোটো-অস্ট্রোলয়েডকোল, ভিল, মুণ্ডা
মঙ্গোলয়েডনেপাল, ভুটান
ভূমধ্যসাগরীয়দক্ষিণ ভারত
ভারতবর্ষের আদি জনগোষ্ঠীসমূহ

ভূমিকা :- ভারতের আদি জনগোষ্ঠীর মধ্যে বহুজাতির সমাবেশ দেখা যায়। প্রাচীন ভারতে দ্রাবিড় জাতি সর্বপ্রথম এক উন্নত সভ্যতা গড়ে তোলে। তারপর একে একে আর্য, পারসিক, গ্রিক, শক, কুষাণ, হুন, তুর্কি, আফগান, মোগল প্রভৃতি নানা জাতিগোষ্ঠী ভারতে প্রবেশ করেছে।

ভারতের জনগোষ্ঠীর বিভাগ

দেহের গঠন, উচ্চতা, গায়ের বর্ণ, মাথার খুলি ইত্যাদি বিশ্লেষণ করে নৃতাত্ত্বিকরা ভারতের জনগোষ্ঠীকে কয়েকটি শ্রেণিতে বিভক্ত করেছেন। যথা –

(১) নেগ্রিটো

আফ্রিকা থেকে আগত এই জনগোষ্ঠী ভারতে প্রায় লুপ্ত। আন্দামান-নিকোবরের আদিম অধিবাসী, আসামের নাগা, কোচিন ও ত্রিবাঙ্কুরের ‘কদর’ ও ‘পলয়ন’ জাতির মধ্যে নেগ্রিটোদের কিছু নিদর্শন পাওয়া যায়। এরা খর্বাকৃতি ও কৃষ্ণবর্ণ। এদের ঠোঁট পুরু, নাক চ্যাপটা।

(২) প্রোটো-অস্ট্রোলয়েড

অস্ট্রেলিয়ার আদি মানবগোষ্ঠীর সাথে এদের মিল আছে। কোল, ভিল, মুণ্ডা প্রভৃতি এই জনগোষ্ঠীর অন্তর্ভুক্ত। এরা খর্বাকৃতি, কৃষ্ণবর্ণ ও প্রশস্ত নাসা।

(৩) মঙ্গোলয়েড

মধ্য-এশিয়ার মোঙ্গল উপজাতির সাথে এদের মিল আছে। আসাম, পার্বত্য ত্রিপুরা, নেপাল, ভুটান, সিকিম, চট্টগ্রাম প্রভৃতি স্থানে এই জনগোষ্ঠীকে দেখা যায়। এদের গায়ের রং হলদে, শ্মশ্রুহীন, চওড়া চোয়াল ও নাক চ্যাপটা।

(৪) ভূমধ্যসাগরীয়

ভূমধ্যসাগরীয় অঞ্চলের আদি বাসিন্দা ছিল এই জনগোষ্ঠী। এদের গায়ের রং কালো, কুঞ্চিত কেশ, প্রশস্ত কপাল ও দৈহিক উচ্চতা মধ্যম। দক্ষিণ ভারত, উত্তর-পশ্চিম সীমান্ত অঞ্চলে এদের দেখা মেলে।

(৫) পশ্চিম ব্রাকিসিফেলা

সম্ভবত মধ্য এশিয়া ও পূর্ব ইউরোপ থেকে এই জনগোষ্ঠীর আবির্ভাব। বাংলা, উড়িষ্যা, গুজরাট ও দাক্ষিণাত্যের নানা অংশে এরা বসবাস করে।

(৬) নর্ডিক

দীর্ঘদেহী, উন্নতনাসা, গৌরবর্ণ এই জাতি ইন্দো-আর্য ভাষাগোষ্ঠীর অন্তর্ভুক্ত। এরাই উত্তর ভারতে আর্যসভ্যতার ভিত্তি স্থাপন করে।

উপসংহার :- কালক্রমে বিভিন্ন জাতি নিজেদের স্বাতন্ত্র্য হারিয়ে ভারতীয় সংস্কৃতির মাঝে লীন হয়ে গেছে। গড়ে উঠেছে এক মহাজাতি। এই কারণে বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ভারতবর্ষকে বলেছেন ‘মহামানবের সাগরতীর’। ঐতিহাসিক ভি. স্মিথ (V. Smith) ভারতকে বলেছেন নৃতত্ত্বের যাদুঘর।

(FAQ) ভারতবর্ষের আদি জনগোষ্ঠীসমূহ সম্পর্কে জিজ্ঞাস্য?

১. ভারতে আর্য সভ্যতার ভিত্তি স্থাপন করে কোন জাতি গোষ্ঠীর মানুষ?

নর্ডিক।

২. ভারতকে নৃতত্ত্বের যাদুঘর বলেছেন কে?

ঐতিহাসিক ভিনসেন্ট স্মিথ।

৩. ভারতবর্ষকে মহামানবের সাগরতীর বলেছেন কে?

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর।

৪. কোল, ভিল, মুণ্ডা কোন জাতি গোষ্ঠীর মানুষ?

প্রোটো-অস্ট্রোলয়েড।

Leave a Comment