ওম বিড়লা

ভারতের লোকসভার বর্তমান স্পিকার ওম বিড়লা -র জন্ম, পিতামাতা, শিক্ষা, পরিবার, জেলা সভাপতি, রাজ্য সভাপতি, জাতীয় সহ সভাপতি, রাজস্থানের বিধান সভা নির্বাচনে অংশগ্রহণ, সংসদীয় সচিব, ষোড়শ ও সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনে জয়লাভ, লোকসভার স্পিকার নির্বাচিত ও তার রাজনীতির কেন্দ্রবিন্দু সম্পর্কে জানবো।

ওম বিড়লা

জন্ম ২৩ নভেম্বর, ১৯৬২ খ্রিস্টাব্দ
পিতা শ্রীকৃষ্ণ বিড়লা
মাতাশকুন্তলা দেবী
বিশেষ পরিচিতিভারতের লোকসভার বর্তমান স্পিকার
পূর্বসূরিসুমিত্রা মহাজন
ওম বিড়লা

ভূমিকা:- ভারতের লোকসভার ১৭ তম এবং বর্তমান স্পিকার ওম বিড়লা একজন ভারতীয় রাজনীতিবিদ, কৃষিবিদ এবং সমাজকর্মী।

জন্ম

১৯৬২ সালের২৩ নভেম্বর একটি মাড়োয়ারি হিন্দু মহেশ্বরী পরিবারে ওম বিড়লা  জন্ম গ্ৰহণ করেন।

পিতামাতা

তার পিতার নাম শ্রীকৃষ্ণ বিড়লা এবং মায়ের নাম শকুন্তলা দেবী।

শিক্ষা

তিনি কোটার সরকারী কমার্স কলেজ ও আজমীরের মহর্ষি দয়ানন্দ সরস্বতী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাণিজ্যে স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করেন।

পরিবার

তিনি ১৯৯১ সালে অমিতা বিড়লাকে বিয়ে করেন। তাদের দুটি কন্যা সন্তান আকাংশা ও অঞ্জলি।

জেলা সভাপতি

ভারতীয় জনতা যুবমোর্চা দলের হয়ে ১৯৮৭-৯১ সালে রাজস্থানের কোটা জেলার জেলা সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন।

রাজ্য সভাপতি

তিনি ভারতীয় জনতা যুবমোর্চা দলের সদস্য হিসেবে ১৯৯১-১৯৯৭ সালে রাজস্থান রাজ্যের রাজ্য সভাপতি ছিলেন।

জাতীয় সহ-সভাপতি

তিনি ১৯৯৭-২০০৩ সাল পর্যন্ত ভারতীয় জনতা যুবমোর্চা দলের সদস্য হিসেবে জাতীয় সহ সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন।

রাজস্থানের বিধানসভা নির্বাচনে অংশগ্রহণ

  • (১) ওম বিড়লা ২০০৩ সালে তার প্রথম বিধানসভা নির্বাচনে কোটা দক্ষিণ কেন্দ্র থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে জিতেছিলেন। তিনি কংগ্রেসের শান্তি ধারিওয়ালকে ১০১০১ ভোটের ব্যবধানে পরাজিত করেছিলেন।
  • (২) ২০০৮ সালে পরবর্তী বিধানসভা নির্বাচনে তিনি তার নিকটতম প্রার্থী রাম কিষাণ ভার্মাকে ২৪৩০০ ভোটে পরাজিত করে নিজের আসন রক্ষা করেছিলেন।
  • (৩) সংসদ সদস্য হওয়ার আগে২০১৩ সালে তিনি কংগ্রেসের পঙ্কজ মেহতারবিরুদ্ধে তার তৃতীয় বিধানসভা নির্বাচনে ৫০০০০ ভোটে জয়ী হন।

সংসদীয় সচিব

২০০৩-০৮ সালে তার মেয়াদে তিনি রাজস্থান সরকারের সংসদীয় সচিব (প্রতিমন্ত্রী পদমর্যাদা) ছিলেন।

ষোড়শ লোকসভা নির্বাচন

বিজেপি প্রার্থী হিসাবে ওম বিড়লা রাজস্থানের কোটা কেন্দ্র থেকে ১৬ তম লোকসভায় নির্বাচিত হয়েছিলেন। এই সময়তিনি সামাজিক ন্যায়বিচার ও ক্ষমতায়ন মন্ত্রকের জন্য শক্তি এবং পরামর্শমূলক কমিটির স্থায়ী কমিটির সদস্য ছিলেন।

সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচন

পরের লোকসভা নির্বাচনেও বিজেপি প্রার্থী হিসেবে তিনি জয়লাভ করেন।

লোকসভার স্পিকার

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির দ্বারা নির্বাচনের প্রস্তাবের পর ১৯ জুন ২০১৯ সালে ওম বিড়লা সপ্তদশ লোকসভার স্পিকার নির্বাচিত হন

লোকসভার ডেপুটি স্পিকার

ভারতীয় প্রজাতন্ত্রের সংসদীয় সম্মেলনে লোকসভার ডেপুটি স্পিকার বিরোধী বেঞ্চ থেকে আসে।

ওম বিড়লার রাজনীতির কেন্দ্রবিন্দু

পার্লামেন্টের সদস্যদের উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেন, “তার (ওম বিড়লা) রাজনীতির কেন্দ্রবিন্দু হল জনসেবা। অসাধারণ এ নেতাই আমাদের হাউসের (লোকসভা) সভাপতিত্ব করবেন”। 

রাষ্ট্রপতিকে শুভেচ্ছা

তিনি বলেন, “দেশের রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হওয়ার জন্য শ্রীমতি দ্রৌপদী মুর্মুজিকে আন্তরিক অভিনন্দন।আপনি সর্বদা জনগণেরআশা-আকাঙ্খার কথাশোনা এবং তাদের সমস্যাসমাধানে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকাপালন করেছেন।” “আমিআশা করি আপনার দক্ষনির্দেশনায় দেশবাসী নতুনভারত গড়তে অগ্রণী অবদানরাখবে”।

উপসংহার:- জনসাধারণের জন্য ওম বিড়লার কাজের প্রশংসা করে প্রধানমন্ত্রী মোদি বলেন, “আইন প্রণেতা ও সাংসদ হিসেবে যেভাবে আপনার সারাজীবন জনগণের সুবিধার জন্য উৎসর্গ করেছেন, তা প্রশংসনীয়। রাজস্থানে আপনার অবদান অসীম। কোটার মতো ছোট শহর আপনার অক্লান্ত সেবায় উপকৃত হয়েছে”।

(FAQ) ওম বিড়লা সম্পর্কে জিজ্ঞাস্য?

১. ভারতের বর্তমান স্পিকার কে?

ওম বিড়লা।

২. ওম বিড়লা কোন রাজ্য থেকে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেন?

রাজস্থান রাজ্যের কোটা-বুন্দি কেন্দ্র থেকে।

৩. ওম বিড়লার পূর্বে কে ভারতের লোকসভার স্পিকার ছিলেন?

সুমিত্রা মহাজন।

Leave a Reply

Translate »