হায়রাটিক লিপি

প্রাচীন মিশরীয় সভ্যতার হায়রাটিক লিপি -র নাম ও অর্থ, শব্দটির প্রথম ব্যবহার, উদ্ভব কাল, লিপির ব্যবহার, গুরুত্ব, লেখার উপকরণ, লিখন পদ্ধতি, অন্যান্য লেখার উপর প্রভাব সম্পর্কে জানবো।

হায়রাটিক লিপি

লিপির বৈশিষ্ট্যভাবলিপির উপাদানসমৃদ্ধ
সময়কালখ্রিস্টপূর্ব তৃতীয় শতক
ভাষামিশরীয়
হায়রাটিক লিপি

ভূমিকা :- প্রাচীন মিশরীয় সভ্যতা -র বিখ্যাত হায়ারোগ্লিফিক লিপির বিবর্তিত রূপ হল হায়রাটিক লিপি।

নাম ও অর্থ

এই লিপির ‘হায়রাটিক’ নামটি গ্রিকদের দেওয়া। এই নামের অর্থ ‘পৌরহিতিক’ বা ‘পুরোহিত সম্পর্কিত’।

হায়রাটিক শব্দটির প্রথম ব্যবহার

আলেকজান্দ্রিয়ার দার্শনিক ক্লীমেন্ট দ্বিতীয় শতকে হায়রাটিক শব্দটি প্রথম ব্যবহার করেন।

সরল সংকলন

এই লিপিটি হায়ারোগ্লিফিক লিপির সরল সংকলন হল হায়রাটিক লিপি। এই লিপি উদ্ভবের সঙ্গেই  মিশরীয় সাহিত্যেরও সফল সূত্রপাত ঘটে।

উদ্ভব কাল

খ্রিষ্টপূর্ব ২৭০০ অব্দের দিকে মিশরে প্রাচীন রাজত্বকালের গোড়ার দিকে হায়রাটিক লিপির উদ্ভব ঘটে।

প্যাপিরাস প্রক্রিয়া

জানা যায় যে, প্রারম্ভিক রাজবংশীয় যুগের শেষদিকে মিশরীয়রা প্যাপিরাস প্রক্রিয়াকরণের মাধ্যমে তা লিখনপত্র হিসেবে ব্যবহার উপযোগী করে তোলে।

প্যাপিরাসে লেখার সুবিধা

প্যাপিরাস প্রক্রিয়াকরণের আগমনের ফলে আর এই প্যাপিরাসে লেখার সুবিধা থেকেই উদ্ভব হয় হায়রাটিক লিপির।

লিপির ব্যবহার

প্রশাসনিক নথি, অ্যাকাউন্ট, আইনী গ্রন্থ এবং চিঠিপত্রের পাশাপাশি গাণিতিক, চিকিৎসা, সাহিত্যিক এবং ধর্মীয় গ্রন্থগুলি লেখার জন্য ব্যবহৃত হত হায়রাটিক লিপির ব্যবহার করা হত।

গুরুত্ব

সাধারণভাবে, মিশরের ইতিহাস জুড়ে হায়ারোগ্লিফিকের চেয়ে হাইরাটিক অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ ছিল, যা প্রতিদিনের জীবনে ব্যবহৃত হত।

লেখার উপকরণ

প্রধানত কঞ্চির কলম ও কালি দিয়ে প্যাপিরাসের ওপর এই লিপি লেখা হত।

পুরোহিতদের লেখা

হায়রাটিক নামটি গ্রিক শব্দ ‘পুরোহিতের লেখা’ থেকে এসেছে বলে মনে করা হত। কারণ, প্রায় সাড়ে আট শতাব্দী ধরে ঐতিহ্যগত ভাবে ধর্মীয় গ্রন্থ ও সাহিত্যের জন্য এই লিপি ব্যবহৃত হত।

ডেমোটিক লিপির উত্থান

ডেমোটিক (এবং পরে গ্রীক) প্রধান প্রশাসনিক লিপিতে পরিণত হলে হায়রাটিক মূলত ধর্মীয় গ্রন্থগুলিতে সীমাবদ্ধ ছিল।

জাগতিক নথি

হেলেনিস্টিক যুগে হায়ারেটিক ব্যবহার করা হয়েছিল। 660 খ্রিস্টপূর্বাব্দের দিকে উত্তর মিশরে ডেমোটিক লিপির উদ্ভব হলে ব্যক্তিগত চিঠিপত্র এবং বাণিজ্য নথির মতো বেশিরভাগ জাগতিক লেখার জন্য হায়ারাটিক লিপি ব্যবহার করা হত।

ব্যবহার অব্যাহত

খ্রিস্টপূর্ব তৃতীয় শতাব্দীতে ধর্মগ্রন্থ ও সাহিত্যের জন্য যাজক শ্রেণীর দ্বারা হায়রাটিক লিপির ব্যবহার অব্যাহত ছিল।

লিখন পদ্ধতি

হায়রাটিক লিপি, শিলালিপি এবং পাণ্ডুলিপি ডান থেকে বামে পড়া হয়। প্রাথমিকভাবে হায়রাটিক স্তম্ভ বা অনুভূমিক লাইনে লেখা যেত। কিন্তু দ্বাদশ রাজবংশের পরে অনুভূমিক লেখার মান হয়ে ওঠে।

হায়রাটিক লিপি অন্যান্য লেখার পদ্ধতির উপর প্রভাব ফেলেছে। যেমন –

  • (১) এই লিপি সবচেয়ে স্পষ্ট প্রভাব বিস্তার করেছে ডেমোটিক লিপির উপর। কারণ হায়রাটিক লিপির সরাসরি বংশধর ছিল ডেমোটিক লিপি।
  • (২) মেরোইটিক লিপির ডেমোটিক লক্ষণ, কপ্টিক বর্ণমালা এবং ওল্ড নুবিয়ানে ব্যবহৃত ডেমোটিক অক্ষর হায়রাটিক লিপি প্রভাবিত।
  • (৩) নীল নদের উপত্যকার বাইরে, বাইব্লোস পাঠ্যাংশে ব্যবহৃত অনেক চিহ্ন স্পষ্টতই হায়রাটিক লক্ষণ থেকে গ্ৰহণ করা হয়েছিল।
  • (৪) এও জানা যায় যে, প্রাথমিক হিব্রুরা হায়রাটিক সংখ্যা ব্যবহার করত।

উপসংহার :- হায়ারোগ্লিফিক লিপি বেশ কঠিন ছিল। সেই উপলব্ধিতে খ্রিষ্টপূর্ব ২৭০০ অব্দের দিকে হায়ারোগ্লিফিক বিবর্তিত হয়ে জন্ম হয় হায়রাটিক লিপির।

(FAQ) হায়রাটিক লিপি সম্পর্কে জিজ্ঞাস্য?

১. হায়ারোগ্লিফিক লিপির বিবর্তনের মাধ্যমে কোন কোন লিপির উদ্ভব ঘটে?

হায়রাটিক ও ডেমোটিক লিপি।

২. হায়রাটিক লিপি কোন সময়ে প্রচলিত ছিল?

খ্রিস্টপূর্ব তৃতীয় শতকে।

৩. হায়রাটিক লিপি কিসের উপর লেখা হত?

প্যাপিরাস।

Leave a Reply

Translate »